রিয়াজ ওসমানী

৫ জানুয়ারী ২০২২

১৯৭২ সালে ডঃ কামাল হোসেন এবং তার সহকর্মী দ্বারা লিখিত বঙ্গবন্ধুর যুগান্তকারী বাংলাদেশের সংবিধানের “ধর্মনিরপেক্ষতা” নামক মূলমন্ত্রের সাথে সাংঘর্ষিক পঞ্চম সংশোধনী এনে সংবিধানের শুরুতে জিয়াউর রহমান ১৯৭৭ সালে “বিসমিল্লাহ” লিখলেন। তারপর ১৯৮৮ সালে অষ্টম সংশোধনী এনে এরশাদ সাহেব সংবিধানে “রাষ্ট্রধর্ম” আনলেন। ২০০৮ সালে শেখ হাসিনা পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশের উচ্চ আদালত পঞ্চম এবং অষ্টম সংশোধনীকে বাতিল ঘোষণা করে। এর ফলে সংবিধানে কোথাও বিসমিল্লাহ এবং রাষ্ট্রধর্ম থাকার অবকাশ ছিল না। কিন্তু ২০১১ সালে সংবিধান পুনঃপ্রকাশ করার সময়ে শেখ হাসিনা ভোটের রাজনীতি করতে গিয়ে সংবিধানে বিসমিল্লাহ আর রাষ্ট্রধর্ম বহাল রাখলেন। আদালত অবমাননা ছাড়াও সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ার আদলে শেখ হাসিনার এই কীর্তিকে অবৈধ হিসেবে ঘোষণা করার জন্য উচ্চ আদলতের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। তবে এই ব্যাপারে উচ্চ আদালতের সদিচ্ছা এবং সৎ সাহস নেই সেটা জেনেই এই ব্লগটা লিখলাম।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s